শতভাগ যাত্রী পরিবহন করতে চান মালিকরা

জাতীয় মহানগর লিড নিউজ সমগ্র বাংলা স্বাস্থ্য

করোনাভাইরাস সংক্রমণ ঠেকাতে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে চলাচল করা বাসে স্বাস্থ্যবিধি মেনে অর্ধেক যাত্রী নিয়ে চলবে। যাত্রী অর্ধেক হলেও বাসভাড়া বাড়ছে না বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ)।

তাই বাস ও মিনিবাসে শতভাগ যাত্রী পরিবহনের প্রস্তাব দিয়েছেন পরিবহন মালিক নেতারা। বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ (বিআরটিএ) এ প্রস্তাবটি সরকারের সংশ্লিষ্ট নীতিনির্ধারকদের কাছে উপস্থাপন করবে বলে জানানো হয়েছে।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) বিআরটিএ ভবনে বৈঠক শেষে বিআরটিএ চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার গণমাধ্যমকর্মীদের বিষয়টি জানান। বিআরটিএ চেয়ারম্যান বলেন, পরিবহন মালিক এবং শ্রমিক সংগঠনের নেতারা বিধিনিষেধে বাস ও মিনিবাসে শতভাগ যাত্রী নিয়ে চলাচলের প্রস্তাত দিয়েছ।

বাস মালিকরা বলছেন- ৫০ শতাংশ যাত্রী পরিবহন করা হলে পরিবহন সংকট চরম আকার ধারণ করবে ও যাত্রীরা দুর্ভোগে পড়বে। তিনি বলেন, পরিবহন মালিক ও শ্রমিক প্রতিনিধিদের এ প্রস্তাব সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট নীতিনির্ধারকদের কাছে পাঠানো হবে। তারপর এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে।

নূর মোহাম্মদ মজুমদার বলেন, এখন বাস ভাড়া বাড়ানো যৌক্তিক হবে না। কারণ, গত নভেম্বরে জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রেক্ষিতে বাসে যাত্রী পরিবহনের ভাড়া বাড়ানো হয়েছে। করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে আগামীকাল (বৃহস্পতিবার) থেকে মোট আসনের অর্ধেক যাত্রী নিয়ে বাস চলাচলের নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে সরকারের পক্ষ থেকে। এ জন্য যাত্রীপ্রতি বাস ভাড়া বাড়ানো হবে না।

গত সোমবার মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ থেকে এ-সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছে। এই প্রজ্ঞাপনের বিষয়ে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) প্রধান কার্যালয় বনানীতে বুধবার (১২ জানুয়ারি) দুপুরের পর সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের নিয়ে একটি বৈঠক শুরু করে বিআরটিএ।

বৈঠক শেষে বাসে ভাড়া না বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতি, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন শ্রমিক ফেডারেশনসহ বিভিন্ন সংগঠনের প্রতিনিধিরা এই বৈঠকে অংশ নেয়।