তেলের দাম কমানো নিয়ে যা বললেন অর্থমন্ত্রী

জাতীয় মহানগর রাজনীতি লিড নিউজ সমগ্র বাংলা

বিশ্ববাজারে জ্বালানি তেলের দাম বেড়ে যাওয়ায় গত বছর নভেম্বরের শুরুতে এক লাফে লিটারে ডিজেল ও কেরোসিনের দাম ১৫ টাকা বাড়ায় সরকার।

এই অজুহাতে বাড়ানো হয় বাস-ট্রাক-লঞ্চের ভাড়া। তবে এর কিছুদিন পর বিশ্ববাজারে টানা তেলের দাম কমতে থাকলেও সুফল পায়নি দেশের সাধারণ মানুষ। তবে এবার তেলের দাম কমানোর বিষয়টি সরকার বিবেচনা করবে বলে জানিয়েছেন অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল।

বুধবার (১২ জানুয়ারি) অর্থনৈতিক বিষয়-সংক্রান্ত সরকারি ক্রয়-সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা কমিটির বৈঠক শেষে তিনি সাংবাদিকদের এ কথা জানান। অর্থমন্ত্রী বলেন, আপনারা জানেন জ্বালানি তেলের দাম কতটা ঊর্ধ্বমুখী ছিলে। এখন আমরা নিম্নমুখী দেখতে পাচ্ছি। আমার বিশ্বাস সরকার সেটি বিবেচনা করবে। এর জন্য সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে যোগাযোগ করতে হবে।

তবে দাম কমানোর বিষয়টি সংশ্লিষ্ট মন্ত্রণালয় ভালো বলতে পারবে। তিনি বলেন, আজ রপ্তানি বাণিজ্যের পরিমাণ নির্ধারণ বিষয়ে একটি প্রস্তাব ছিল। আমরা কীভাবে রপ্তানি বাণিজ্য করব এর নীতি নির্ধারণ করার বিষয়টি প্রস্তাবে আসে। আমরা ২০২১ থেকে ২০২৪ সাল পর্যন্ত এর খসড়া নীতি নির্ধারণ করেছি, এটা অনুমোদন করে দিয়েছি।

আমাদের বিদ্যমান রপ্তানি বাণিজ্যের যে লক্ষ্যমাত্রা সেটি ৬০ বিলিয়ন মর্কিন ডলার, এটিকে বাড়িয়ে ৮০ বিলিয়ন মার্কিন ডলারে উন্নীত করেছি। এর জন্য আনুষঙ্গিক যেসব বিষয় রয়েছে, সেগুলোর জন্য যা যা করা দরকার, করব।