অবশেষে চালকের আসনে বাংলাদেশ

Featured খেলাধুলা লিড নিউজ

কিউইদের বিপক্ষে তৃতীয় দিনটা ভালোই কাটছিল বাংলাদেশের। তবে শেষ সেশনে বোল্টের বোলিংতাণ্ডবে দুই সেট ব্যাটসম্যান মুমিনুল এবং লিটনকে হারিয়ে খেই হারিয়ে ফেলে টাইগাররা। কিন্তু দিন শেষে টাইগাররা যে চালকের আসনে রয়েছে এটা বলাই যায়। কেননা বাংলাদেশের লিড দাঁড়িয়েছে ৭৩ রানে। তৃতীয় দিন শেষে বাংলাদেশের সংগ্রহ ৬ উইকেটে ৪০১ রান।

বে ওভালে আরেকটি দারুণ দিন কাঁটানোর অপেক্ষায় ছিল বাংলাদেশ। শুরুর সেশনে মাহমুদুল হাসান এবং সাদমানকে হারালেও লিটন দাস এবং মুমিনুল হকের মন্থর ব্যাটিংয়ে ভালোই এগোতে থাকে বাংলাদেশ। তবে শতকের মাত্র ১২ রান আগে বোল্টের বলে এলবিডব্লিউ হয়ে প্যাভিলিয়নে ফেরেন মুমিনুল। এর ২৯ বল পর আরেক সেট ব্যাটার লিটন দাস ফেরেন ৮৬ করে। তবুও দিন শেষে এগিয়ে রাখা যাবে বাংলাদেশকে। কারণ পিচটা তো নিউজিল্যান্ডের। আর কিউই বোলারদের দাঁতভাঙ্গা জবাবও দিয়েছে টাইগার ব্যাটাররা।

ইয়াসির আলী ১১ এবং মেহেদী হাসান মিরাজ ২০ রান নিয়ে অপরাজিত থেকে দিনের খেলা শেষ করেছেন।

এর আগে তৃতীয় দিনের শুরুতেই তরুণ ব্যাটার মাহমুদুল হাসান ব্যক্তিগত ৭৮ রানের মাথায় সাজঘরে ফেরার পর অধিনায়ক মুমিনুল হকের সঙ্গে ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন মুশি। শুরুটা ভালোও করেছিলেন। তবে ট্রেন্ট বোল্টের বলে বোল্ড হয়ে মাত্র ১২ রান করে ফিরেছেন মুশফিক।

এরপর আগের দুই উইকেট পাওয়া সেই নিল ওয়াগনার আবারও উইকেট পান। যেন বাংলাদেশের আশার পালে বিষদাঁত ফুটিয়ে দেন বাঁহাতি এই ফাস্ট বোলার। সাদমান ও শান্তর পর তার শিকার লাল-সবুজের আরেক ভরসার নাম মাহমুদুল হাসান জয়। ২২৮ বলে অনবদ্য ৭৮ রান করে হ্যানরি নিকোলসের হাতে ক্যাচ দিয়ে সাজঘরে ফেরেন এই তরুণ তুর্কি।

আগের দিন ৭০ রানে অপরাজিত থাকার পর তৃতীয় দিনে কেবল ৮ রান করেই প্যাভিলিয়নে ফেরেন জয়। ক্যারিয়ারের দ্বিতীয় টেস্টে খেলতে নেমেই অর্ধশতক হাঁকানোর পর প্রথম ও আরাধ্য সেই শতকের দিকেই এগিয়ে যাচ্ছিলেন এই তরুণ টাইগার ব্যাটার। তবে ওয়াগনার সেটা হতে দেননি। তার বাউন্সারে শেষ পর্যন্ত জয়ের ইনিংসের ইতি ঘটে।

এর আগে প্রথম দিনের মতো দ্বিতীয় দিন শেষেও স্বস্তিতে ছিল টিম টাইগার্স। রোববার (২ জানুয়ারি) কিউইদের ৩২৮ রানে আটকে দেওয়ার পর ব্যাট হাতেও ভালো করে সফরকারীরা।

২ উইকেট হারিয়ে ১৭৫ রান করে দ্বিতীয় দিন শেষ করেছিল বাংলাদেশ। মাহমুদুল হাসান জয় ৭০ ও অধিনায়ক মুমিনুল হক ৮ রানে অপরাজিত ছিলেন। এর আগে বে ওভালে ব্যাট হাতে দারুণ শুরু করেন সাদমান ইসলাম। তাকে ভালোভাবে সঙ্গ দেন মাহমুদুল হাসান জয়। দেখেশুনে খেলে ভালোভাবেই এগোচ্ছিলেন তারা। তবে লাঞ্চ বিরতির আগে ওয়াগনারের শিকার হন সাদমান। সাজঘরে ফেরার আগে তিনি করেন ২২ রান।

সাদমান ফিরলেও আরেক উদ্বোধনী ব্যাটসম্যান মাহমুদুল হাসান ও তিনে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত বাংলাদেশকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন। তবে নাজমুলকেও ৬৪ রানে সাজঘরে ফেরান ওয়াগনার।

এর আগে ৫ উইকেটে ২৫৮ রান নিয়ে দ্বিতীয় দিন শুরু করে কিউইরা। তবে মিরাজ-শরিফুলের বোলিং নৈপুণ্যে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারায় ব্ল্যাকক্যাপরা। দ্বিতীয় দিন মাত্র ৭০ রান যোগ করতেই বাকি ৫ উইকেট হারিয়ে ৩২৮ রানে থামে স্বাগতিকদের ইনিংস। মিরাজ ও শরিফুল দুজনই নেন ৩টি করে উইকেট।