গ্যাসচালিত গণপরিবহনে স্টিকার না লাগালেই ব্যবস্থা

মহানগর লিড নিউজ

সিবিসি নিউজ ডেস্ক

জ্বালানি তেলের মূল্যবৃদ্ধির কারণে দূরপাল্লা ও মহানগরীতে চলাচলকারী গণপরিবহনের ভাড়া বাড়লেও আগের অবস্থাতেই থাকার কথা ছিল গ্যাসচালিত বাসের ভাড়া। কিন্তু কে শোনে কার কথা। সুযোগ বুঝে বাড়তি ভাড়া আদায় করছে গ্যাসচালিত গণপরিবহনগুলোও।

বুধবার আজ (১০ নভেম্বর) সকালে অভিযানে নামে বিআরটিএর মোবাইল কোর্ট। সেখানে দেখা যায় গ্যাসচালিত বাসেও বাড়তি ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। যাত্রীরা অনেক সময় কোনটা ডিজেল চালিত গাড়ি আর কোনটা গ্যাস চালিত সেটা বুঝে উঠতে না পেরে অতিরিক্ত ভাড়া দিচ্ছেন।

যাত্রীদের এ অভিযোগের সমাধান দিয়েছে বিআরটিএ। তারা চেনার সুবিধার্থে সিএনজিচালিত পরিবহনে স্টিকার লাগানোর নির্দেশনা দিয়েছে। সড়ক পরিবহন মালিকদের দেওয়া নির্দেশনায়ও বলা হয়েছে, স্টিকার না লাগালে বিআরটিএ ব্যবস্থা নেবে।

এ বিষয়ে বিআরটিএর পরিচালক (রোড সেফটি) শেখ মোহাম্মদ মাহবুব-ই-রব্বানী সংবাদমাধ্যমকে বলেন, সিএনজিচালিত পরিবহনে স্টিকার লাগাতে আমরা মালিকদের চিঠি দিয়ে দিয়েছি। স্টিকার না লাগালে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

গত ৮ নভেম্বর বিআরটিএ ১৩টি মোবাইল কোর্ট পরিচালনা করে ২২০টি গাড়ি মনিটরিং করেছে। এর মধ্যে ৫৯টি সিএনজিচালিত পরিবহন ছিল। ডিজেলচালিত ৩৮টি গাড়ি ও ২৯টি সিএনজিচালিত গাড়িকে অতিরিক্ত ভাড়া আদায়ের দায়ে জরিমানা করা হয়েছে। ওইদিন মোট এক লাখ ৫৪ হাজার ১০০ টাকা জরিমানা আদায় করা হয়।

প্রতিদিনিই সড়কে বিআরটিএর এ মনিটরিং কার্যক্রম অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন সংস্থাটির পরিচালক (এনফোর্সমেন্ট) সারওয়ার আলম।

এর আগে গতকাল মঙ্গলবার (৯ নভেম্বর) বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্যাহ সিএনজিচালিত যানের ভাড়া না বাড়াতে মালিকদের বিশেষ নির্দেশনা দেন।

নির্দেশনায় বলা হয়, ডিজেলের দাম বৃদ্ধি পাওয়ায় গত ৭ নভেম্বর বিআরটিএ এক বৈঠকে ভাড়া পুনর্নির্ধারণ করেছে। দূরপাল্লার বাসে ১.৮০ টাকা এবং ঢাকা ও চট্টগ্রাম মহানগরে ডিজেলচালিত বাসের জন্য প্রতি কিলোমিটার ২.১৫ টাকা এবং মিনিবাসে প্রতি কিলোমিটার ২.০৫ টাকা নির্ধারণ করা হয়েছে। সিএনজিচালিত কোনো যানের ভাড়া বাড়ানো হয়নি।