৬-৭ বছর ধরে বাস ভাড়া বাড়েনি, বলেছে মালিকপক্ষ

জাতীয় লিড নিউজ

নিজস্ব প্রতিবেদক

জ্বালানি তেলের দাম বৃদ্ধির প্রেক্ষাপটে ভাড়া বৃদ্ধির দাবিতে বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষের (বিআরটিএ) কাছে একটি আবেদন দিয়েছেন বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব।

গত বৃহস্পতিবার (৪ নভেম্বর) দেওয়া সেই আবেদনে তিনি উল্লেখ করেছেন, ঢাকা, চট্টগ্রাম মহানগরীসহ দূরপাল্লার রুটে ছয় থেকে সাত বছর ধরে বাস ভাড়া বৃদ্ধি হয়নি। করোনাকালেও তারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছেন। সম্প্রতি ডিজেলের মূল্য লিটার প্রতি ১৫ টাকা বৃদ্ধি পাওয়ায় তারা বাস ভাড়া বৃদ্ধির জন্য আবেদনটি করেন।

পরিবহন মালিকদের আবেদন বিবেচনায় নিয়ে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য বৈঠকে বসেছে বিআরটিএ। বৈঠকের কার্যপত্রে এ তথ্য উল্লেখ করা হয়েছে। তাতে বলা হয়েছে, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির আবেদন বিবেচনায় নিয়ে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত গ্রহণের জন্য সভার আয়োজন করা হয়েছে।

আবেদন দেওয়ার পরদিন শুক্রবার থেকে ধর্মঘটে যান পরিবহন মালিক-শ্রমিকরা। এতে অচল হয়ে পড়েছে দেশের পরিবহন ব্যবস্থা। সাধারণ মানুষের ভোগান্তি চরমে। এই অচলাবস্থা কাটাতে ধর্মঘটের তৃতীয় দিনে নতুন ভাড়া নির্ধারণের জন্য বৈঠক শুরু হলো।

বৈঠকের কার্যপত্রে মালিক সমিতির আবেদনের কথা ছাড়াও আরও পাঁচটি বিষয় উল্লেখ করা হয়েছে।

আজ রবিবারের সভায় আলোচনার বিআরটিএর সর্বশেষ ব্যয় বিশ্লেষণ অনুযায়ী সম্ভাব্য ভাড়া ঠিক করেছে কমিটি। তাতে বলা হয়েছে, ‘সবশেষ ব্যয় বিশ্লেষণ অনুযায়ী ভাড়া হতে পারে দূরপাল্লা ও মহানগরী এলাকায় যথাক্রমে ১ টাকা ৮২ ও ২ টাকা ১০ টাকা। তবে বর্তমান বাস ভাড়ার সঙ্গে ডিজেলের মূল্যবৃদ্ধির হার ২৩ দশমিক ০৮ শতাংশ সমন্বয় করে বাস ভাড়া পুনর্নির্ধারণের বিষয়টি আলোচনা হতে পারে।

২০১৯ সালের ব্যয়বিশ্লেষণ ‘বাস্তবতার নিরিখে’ পুনর্বিশ্লেষণ ও বিআরটিএর সর্বশেষ ব্যয় বিশ্লেষণ পর্যালোচনাপূর্বক ‘সার্বিক বিবেচনায়’ ভাড়া পুনর্নির্ধারণের বিষয়টি সভায় চূড়ান্ত করা যেতে পারে বলেও মনে করে কমিটি।