শ্রীপুরে অবৈধ করাতকল গিলে খাচ্ছে বনাঞ্চল, ধ্বংস হচ্ছে পরিবেশ

সমগ্র বাংলা

নিজস্ব প্রতিবেদক :- কোন মতেই যেন বন্ধ করা যাচ্ছে না। অবৈধ করাতকল গিলে খাচ্ছে বনাঞ্চল, গাজীপুর জেলার শ্রীপুর উপজেলায় অবৈধ করাতকল গুলোর করাল গ্রাসে উজার হয়ে যাচ্ছে বনাঞ্চল। আর এতে করে প্রাকৃতিক ভারসাম্য হারাচ্ছে পরিবেশ। একই সাথে সরকারের রাজস্ব থেকে খোয়া যাচ্ছে কোটি কোটি টাকা।

মাঝে মধ্যে প্রশাসনের লোক দেখানো অভিযান করলেও তা যথেষ্ট নয় বলে জানিয়েছেন স্থানীয় এলাকাবাসী। তবে বন বিভাগ বলছে, অবৈধ করাতকল রোধে তৎপর রয়েছেন তারা।

এদিকে শ্রীপুর উপজেলার কাওরাইদ, বরমী, মাওনা, জৈনা, গাজীপুর, শ্রীপুর পৌরসভা, গোসিংগা,রাজাবাড়িতে সবচেয়ে বেশি অবৈধ ভাবে গড়ে উঠা করাতকলগুলোই বনের গাছগুলোকে গিলে খাচ্ছে বলে অভিযোগ রয়েছে স্থানীয় সচেতন মহলের মানুষদের মধ্যে।

সচেতনমহল বলছে, প্রশাসন যদি কঠোর হত তা হলে বনের গাছ চুরি করা দুরের কথা করাতকল গুলোতে আসার সুযোগই থাকত না। গাছ ব্যবসায়ীদের গাছ চুরি থেকে শুরু করে কল পর্যন্ত পৌছানোর প্রত্যেক্ষ ও পরোক্ষা ভাবে মদদ রয়েছে বন কর্মকর্তাদের অসাধু কিছু কর্মকর্তা কর্মচারীদের।

এর মধ্যে যে সকল বিট অফিস হলো। শ্রীপুর রেঞ্জের বিভিন্ন বিট রাজেন্দ্রপুর রেঞ্জের বিভিন্ন বিট অফিসের যোগসাজশে ধংসের দিকে বন বিভাগের গাছগুলো। সরেজমিনে ঘুরে দেখা যায়, বনের একেবারে পার্শ্ববর্তী এলাকায় গড়ে উঠেছে একাধিক অবৈধ করাতকল। যে কলগুলোতে দিনদুপুরে কিংবা রাতের আধারে বন থেকে গাছ চুরি করে নিয়ে আসার পর প্রকাশ্যে চিড়ে কাট বানানো হয়ে থাকে। এমন টি অভিযোগ পাওয়া গেছে।

বন থেকে চুরির গাছগুলো অল্প সময়ের মধ্যে সাবাড় করতেই স্থাপন করা হয়েছে এসব করাতকলে। মূলত এসবকলের কারণেই উজাড় হচ্ছে বনাঞ্চল ধ্বংস হচ্ছে প্রাকৃতিক ভাবে গড়ে উঠা বনের অধিকাংশ গাছগাছালি। এবিষয়ে শ্রীপুর রেঞ্জ কর্মকর্তা আনিসুল হক জানান, অবৈধ এই সব করাতকল গুলোতে অভিযানের প্রস্তুতি চলছে। আমরা খুব শ্রীঘ্রই অভিযান শুরু করবো। শ্রীপুর রেঞ্জে সর্বমোট প্রায় দুই শ’টি করাতকল আছে এর মধ্যে ২৪ টি করাতকলের বৈধতা আছে বাকি গুলার বৈধতা নেই বলে তিনি জানান।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *