1. admin@cbctvbd.com : admin :
  2. cbctvbd@gmail.com : cbc tv : cbc tv
রবিবার, ২৫ জুলাই ২০২১, ০৫:২৫ পূর্বাহ্ন

‘কিশোর গ্যাং’ গাজীপুর ও টঙ্গীতে আধিপত্য বিস্তার

নিজস্ব প্রতিবেদক
  • Update Time : বুধবার, ১৮ নভেম্বর, ২০২০

ফখরুল ইসলাম ফাহিম টঙ্গী গাজীপুর প্রতিনিধি:- গাজীপুর শহর ও টঙ্গী এলাকায় দিন দিন তৈরি হচ্ছে কিশোর গ্যাং। গত জুলাই ও গত মাসে খুন হয়েছে দুই কিশোর। এদের এজন চা বিক্রেতা অন্যজন স্কুলছাত্র। এমন দুইটি কিশোর গ্যাংয়ের ১০ জনকে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাব ও পুলিশ। তাদের হেফাজত থেকে দারালো অস্ত্র উদ্ধার হয়েছে।

গ্রেপ্তারকৃতরা সবাই আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবান বন্দি দিয়েছে। বর্তমান সময়ে কিশোর গ্যাং, গ্যাং কালচার, উঠতি বয়সি কিশোরদের মধ্যে ক্ষমতা বিস্তারকে কেন্দ্র করে এক গ্রুপের সঙ্গে অন্য গ্রুপের মারামারি উদ্বেগজনক ঘটনায় পরিণত হয়েছে। এ ক্ষমতা বিস্তারকে কেন্দ্র করে ইতিমধ্যে খুন হয়েছেন অনেক উঠতি বয়সের কিশোর।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান, গাজীপুর মহানগরীর জেলা শহর, টঙ্গী, বাসন, গাছা, কোনাবাড়ি, কাশিমপুর থানা এলাকায় বিদ্যমান রয়েছে ভয়ংকর কিছু কিশোর গ্যাং গ্রুপ। এসব গ্রুপ তাদের দেয়া বিভিন্ন নামে পরিচিত। সাধারণত উঠতি বয়সের কিশোররা এসব গ্যাং কালচারের সঙ্গে জড়িত। অভিভাবকের অবহেলা ও পশ্চিমা কালচারের অনুকরণে এসব গ্রুপ গড়ে উঠেছে। এসব গ্যাং গ্রুপের মধ্যে সামান্য ছোট খাটো বিষয় নিয়ে ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকে। এমনি একটি ঘটনায় শিকার গাজীপুর শহর এলাকার ১৬ বছর বয়সি ফকির আলমগীরের ছেলে নুরুল ইসলাম ওরফে নুরু।

গত ৩ সেপ্টেম্বর সামান্য ‘তুই’ বলা’কে কেন্দ্র করে সমবয়সীদের হাতে প্রাণ দিতে হয় নুরুকে। জেলা শহরের সাহাপাড়ার ‘ভাই-ব্রাদারস’ গ্রুপের বেশ কয়েকজন সদস্য কিশোর নুরুকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে উপর্যুপরি আঘাত হত্যা করে। এ ঘটনায় গত ১২ সেপ্টেম্বর র‌্যাব-১ এর সদস্যরা গাজীপুরের বিভিন্ন এলাকা থেকে হত্যাকান্ডে জড়িত কিশোর গ্যাং চক্রের ৬ জনকে গ্রেপ্তার করে। এসময় তাদের কাছ থেকে হত্যাকান্ডে ব্যবহৃত ২ টি চাপাতি ও ১ টি ছুরা উদ্ধার করা হয়।

গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, টঙ্গী ও গাজীপুর এলাকায় দীর্ঘদিন যাবৎ বেশ কিছু কিশোর গ্যাং গ্রুপ বিদ্যমান রয়েছে। এসব গ্রুপ তাদের দেয়া বিভিন্ন নামে তারা পরিচিত। সাধারণত উঠতি বয়সের কিশোররা গ্যাং কালচারের সঙ্গে জড়িত। অভিভাবকের অবহেলা ও পশ্চিমা কালচারের অনুকরণে এসব গ্রুপ গড়ে উঠেছে। এসব গ্যাং গ্রুপের মধ্যে ছোট-খাটো বিষয় নিয়ে দ্ব›দ্ব ঝগড়া বিবাদ লেগেই থাকে। কিশোররা যেন কোন গ্যাং সৃষ্টি করতে না পারেন এবং কোন গ্যাংয়ে যুক্ত হতে না পারে সে বিষয়ে নজরদারি করা হচ্ছে।

গত ৭ জুলাই গাজীপুর মহানগরীর টঙ্গী পূর্ব থানাধীন বিসিক পাগারের ফকির মার্কেট এলাকায় আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করে স্থানীয় ফিউচার ম্যাপ স্কুলের ৯ম শ্রেনীর ছাত্র শুভ আহাম্মেদকে (১৬) বুকে, পিঠে ও মাথায় উপর্যপরি কুপিয়ে হত্যা করা হয়। এসময় হত্যার কাজে ব্যবহৃত ধারালো অস্ত্র, সুইজ গিয়ার ও চাকু উদ্ধার করা হয়। নিহত শুভ ছিল বাবা-মায়ের একমাত্র সন্তান। এ ঘটনায় পরদিন থানায় মামলা করা হয়। পরে র‌্যাব-১ এর সদস্যরা জেলার বিভিন্ন এলাকায় অভিযান চালিয়ে মামলার প্রধান আসামি ও কিশোর গ্যাং লিডার একই এলাকার মৃদুল হাসান পাপ্পুসহ ‘পাপ্পু লিডার’ গ্রপের ৪ জনকে গ্রেপ্তার করে।

পরে গ্রেপ্তারকৃতরা আদালতে স্বীকারোক্তিমুলক জবানবন্দি দিয়েছে। এ ঘটনার কয়েকদিন পর ২৪ জুলাই একই থানাধীন কাজী পাড়া চন্দ্রীমা এলাকায় বাসায় ঢুকে তৌফিজুল ইসলাম ওরফে মুন্না (১৫) নামে এক স্কুল শিক্ষার্থীকে খুন করা হয়। মুন্না রাজধানীর মগবাজারের বিএফ শাহিন একাডেমির ৮ম শ্রেণির ছাত্র ছিলেন। ঘটনার সময় তার বাবা-মা বাসায় ছিলেন না। মুন্নার মা ছোট মেয়েকে স্কুল থেকে নিয়ে বাসায় এসে দেখেন খাটে মুন্নার রক্তাক্ত নিথর মরদেহ পরে রয়েছে। এ ঘটনায় পুলিশ মুন্নার ব্যবহৃত মোবাইল সেটটি উদ্ধার করতে পারলেও হত্যাকান্ডের মূল অপরাধীকে এখনো শনাক্ত করতে পারেনি।

স্থানীয় বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গাজীপুরের ভাওয়াল বদরে আলম সরকারি কলেজ, টঙ্গী সরকারি কলেজ, সফিউদ্দিন একাডেমি এন্ড কলেজ, কাজী আজিম উদ্দিন কলেজ, চান্দনা উচ্চ বিদ্যালয়, রানী বিলাস মণি বালক উচ্চ বিদ্যালয়, হাড়িনাল উচ্চ বিদ্যালয়সহ শহর কেন্দ্রিক কলেজ ও স্কুল গুলোতে কিশোর গ্যাং সংস্কৃতি ঢুকে পড়েছে। ওইসব বিদ্যালয়ের কিছু শিক্ষার্থী একাধিক ফেজবুক মেসেঞ্জার গ্রুপ খুলে ভংয়কর তৎপরতা চালাচ্ছে। মেসেঞ্জার গ্রুপে তারা বিভিন্ন ধরণের ধারালো অস্ত্র কেনা বা সংগ্রহে বার্তা আদান-প্রদান করছে।

গ্রুপ সদস্যরা রাজনৈতিক বড় ভাইদের সঙ্গে দেখা করার জন্য সময় ও স্থান নিয়ে নিজেদের মেসেঞ্জারে বার্তা আদান-প্রদান করছে। এছাড়া ফেজবুক আইডিতে তারা নিজেদের মাফিয়া ডন, ব্যাডবয়, তোর বাপ, খারাপ ছেলে, ইবলিশ শয়তানসহ অসংখ্য এ্যাকশন মুভির ভিলেন চরিত্র ও ছাপার অযোগ্য ভাষায় উপস্থাপন করছে।

গাজীপুরের র‌্যাব-১ এর পোড়াবাড়ী ক্যাম্পের কমান্ডার লে. কমান্ডার আব্দুল্লাহ আল মামুন সাংবাদিকদের জানান, আমাদের একটি টিম কিশোর গ্যাং নিয়ে কাজ করছে। এছাড়া তিনি কিশোরদের পরিবারের সদস্যদের নজরদারি বাড়ানোর তাগিদ দিয়েছেন। গাজীপুর মেট্রোপলিটন পুলিশের কমিশনার জানান, কিশোর গ্যাং একটি নতুন বিষয়। এটিকে শুরুতেই রোধ করতে পুলিশকে কঠোর নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। জীবনের শুরুতেই কিশোররা যেন অপরাধের সঙ্গে যুক্ত না হতে পারে সে জন্য অভিভাবকদের আরো সচেতন হওয়ার পরামর্শ দিয়েছেন পুলিশ কমিশনার।

Please Share This Post in Your Social Media

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

More News Of This Category
© All rights reserved © 2020 cbctvbd (cable bangla channel)
Developed By : Porosh Soft